কাশ্মীরে নিহত ভারতের ‘শীর্ষ জঙ্গি’ জাকির মুসা আসলে কে?

82

ভারতের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ বা ‘শীর্ষ জঙ্গি’ বলে যাকে বর্ণনা করা হয়, সেই জাকির মুসা বৃহস্পতিবার ভারত শাসিত কাশ্মীরে নিহত হয়েছেন।

মৃত্যুর পর তার জানাজায় ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে সমবেত হয়েছিলেন হাজার হাজার মানুষ।

তার মৃত্যুতে ইতিমধ্যেই কাশ্মীরে ব্যাপক ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। বলা হচ্ছে, ঐ অঞ্চলে নতুন করে বড় সহিংসতা শুরু হলো বলে।

সেনাবাহিনী জানিয়েছে, কাশ্মীরের দক্ষিণে ত্রাল জেলায় জাকির মুসাকে বন্দি করার পর তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

কে এই জাকির মুসা?

জাকির মুসার আসল নাম জাকির রাশিদ ভাট।

২০১৬ সালে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে নিহত ক্যারিশমাটিক জঙ্গি নেতা বুরহান ওয়ানির ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন এই জাকির।

বুরহান ওয়ানি নিহত হবার পর কাশ্মীরে ব্যাপক বিক্ষোভ ও সহিংসতা হয়েছিল।

নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ১০০ জনের বেশি বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছিলেন সেসময়।

জাকির মুসা হিযবুল মুজাহিদিনের থেকে আলাদা হয়ে গিয়ে ২০১৭ সালে আল কায়েদার প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেছিলেন।

কাশ্মীরে ভারত শাসনের বিরোধিতাকারী অন্যতম বড় গ্রুপগুলোর একটি এই হিযবুল মুজাহিদিন।

জাকির মুসা পরে আনসার গাযওয়াত-উল-হিন্দ নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলেন। বলা হয় ঐ দলটির পাকিস্তানি জঙ্গি সংগঠনের সাথে যোগাযোগ রয়েছে।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, ওয়ানির মৃত্যুর পর এ পর্যন্ত জাকির মুসার নিহত হওয়াই দেশটির সেনাবাহিনীর ‘সবচেয়ে বড় বিজয়’।

তবে এটা এখনো পরিষ্কার নয় যে জাকির মুসার আনসার গাযওয়াত-উল-হিন্দ দলে কত সংখ্যক যোদ্ধা ছিলো।

জাকির মুসার মৃত্যু নিশ্চিত করে সেনাবাহিনীর দেয়া এক লাইনের বিবৃতিতে ছিলো, “পুলাওয়ামাতে অভিযানে জাকির মুসা নামে একজন সন্ত্রাসী নিহত। অস্ত্র এবং যুদ্ধের সরঞ্জাম উদ্ধার হয়েছে”।

জাকির মুসার জানাজা

সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন, জাকির মুসার জানাজায় ১০ হাজারের বেশি মানুষ সমবেত হয়েছিলেন। সে সময় প্রবল বৃষ্টি ও ঝড় উপেক্ষা করে দীর্ঘ সময় মানুষ অপেক্ষা করে।

শ্রীনগর সংলগ্ন একমাত্র হাইওয়ের কাছে সমবেত শত শত মানুষ “মুসা মুসা জাকির মুসা” বলে চিৎকার করতে থাকে। অনেকে সামরিক বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ে মারে।

কমেন্ট করুন

ফেসবুক পেইজে লাইক দিন